হাসনাহেনা

20th November 2019 0 Comments

হাসনাহেনা একটি পরিচিত ফুল। বর্ষাকালে ফুটে থাকে। হাসনাহেনাকে রাতের রাণী বলা হয়। বর্ষার সময় অকৃত্রিমভাবে সারারাত সুবাস বিলিয়ে মানুষের মন জয় করে নিয়েছে এ ফুল। কিছুতেই এড়ানো যাবে না এমনই গন্ধের জোয়ার রয়েছে এতে । যেখানেই ফুটুক, জানান সে দেবেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রজাতি। লতানো ধরনের ঝোপাল গাছ। ডালের গায়ে অজস্র সাদা সাদা তিল থাকে, এদের নাম ল্যান্টিসেল। পাতা লম্বাটে, ১৪.৪ থেকে ৩-৪ সেমি, মসৃণ। বছরে কয়েকবার ফুল ফোটে। তবে গ্রীষ্ম ও বর্ষায় বেশি ফোটে। পাতার গোড়া বা ডালের ও আগায় ফুলের ছোট ছোট থোকা, সন্ধ্যায় ফোটে ও সুগন্ধ ছড়ায়। সাদাটে ফুল নলাকার, ২ সেমি লম্বা, ৫ পাপড়ি। ফল গোল, সাদা। কলমে চাষ। Cestrum diurnum বুনো প্রজাতি, ভারতে এবং বাংলাদেশেও জন্মায়। গাছ খাড়া, তেমন ঝোপাল বা লতান নয়। ফুলের গন্ধও কম, দিনের বেলা ফোটে।

 

উপকারিতাঃ

১। ক্রিমি রক্তাভ হলে হাসনাহেনা গাছের পাতার রস নিয়ে অল্প গরম করে সেবন করলে ক্রিমিতে উপকার পাওয়া যায়।

২। হাসনাহেনা পাতা থেঁতো করে কাঁচা দুধের সাথে মিশিয়ে একটু উষ্ণ করে সেবন করলে রক্ত আমাশয়ে উপকার পাওয়া যায়।

৩। হাসনাহেনা পাতার রস এবং নারকেলের দুধ ভালো করে মিশিয়ে কয়েকদিন সকালে সেবন করলে স্তন্যদাত্রী মায়েদের উপকার হয়।

৪। হাসনাহেনা পাতা থেঁতো করে এই রস খেলে স্রাব পরিষ্কার হবে ও যন্ত্রণা থাকবে না।

৫। হাসনাহেনা গাছের মূল রস করে সেবন করলে জ্বর দ্রুত ভালো হয়।

 

 

অনলাইনে বীজ কোথায় পাওয়া যায়ঃ

দোকানের পাশাপাশি এখন অনলাইনে বীজ কিনতে পারবেন। কিনতে নিচে বীজ লেখা লিঙ্কের উপর ক্লিক করুনঃ

বীজ

Leave a Comment

Your email address will not be published.