হামিং বার্ড

30th October 2019 0 Comments

ছোট্ট চড়ুই পাখি সারা দিন ফুড়ুত ফুড়ুত করে গাছের এ-ডাল থেকে ও-ডালে উড়ে বেড়ায়। কিন্তু দক্ষিণ ও উত্তর আমেরিকার উষ্ণ অঞ্চলে চড়ুই পাখির চেয়েও ছোট্ট এক পাখি দেখা যায়। চড়ুইয়ের মতোই সারা দিন ডানা ঝাঁপটিয়ে ওড়াউড়িতে তাদের ক্লান্তি নেই মোটেই। মজার ব্যাপার হলো,এই পাখি যখন ওড়ে তখন তার ডানার দ্রুত সঞ্চালনের ফলে বাতাসে গুনগুন শব্দ হয়। গুনগুন করাকে ইংরেজিতে হামিং (Humming) বলে। এ জন্যই এই পাখির নাম হামিং বার্ড। পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট পাখি হলো এই হামিং বার্ড।

 

১. হামিং বার্ড হাঁটতে পারে না। তবে এরাই একমাত্র পাখি যারা সামনে, পেছনে, ওপরে ও নিচে সবদিকেই পূর্ণগতিতে চলাচল করতে পারে।

২. হামিংবার্ডের বাসা একটি আখরোটের সমান।

৩. এদের কেবল আমেরিকার ট্রপিক্যাল অঞ্চলে পাওয়া যায়। আকৃতিতে ছোট হলেও পৃথিবীতে প্রায় ৪০০ প্রজাতির হামিংবার্ড রয়েছে।

৪. এদের মধ্যে ‘কিউবান বি’ প্রজাতির হামিংবার্ড সবচেয়ে ছোট। এদের দৈর্ঘ্য মাত্র ২ ইঞ্চি অর্থাত্‍ একটা মৌমাছির সমান।

৫. ‘কিউবান বি’ প্রজাতির হামিংবার্ড আকৃতিতে খুবই ছোট হলেও শরত্‍ এবং বসন্তকালীন পরিযাত্রার সময় এরা মেক্সিকো উপসাগর পাড়ি দেয়।

৬. একটি হামিংবার্ডের দেহে প্রায় ৯০০টি পালক থাকে।

৭. ওড়ার সময় এই খুদে পাখিরা ঘন ঘন ডানা ঝাঁপটায়। অনেকগুলো পাখি একসঙ্গে ডানা ঝাঁপটালেএকধরনের তীব্র গুঞ্জন সৃষ্টি হয়। এজন্যই এদেরকে ‘হামিংবার্ড’ বলা হয়।

৮. এরা মিনিটে ২৫০ বার শ্বাস নেয় এবং ওড়ার সময় তা আরও বেড়ে যায়। আর এদেরহৃদস্পন্দনের হার মিনিটে ১২০০ বিট।

৯. ৩০ কিলোমিটার ক্ষেত্রবিশেষে আরও বেশি গতিতে এরা উড়তে পারে। এরা সেকেন্ডে ৭০ বারের মতো ডানা ঝাপটাতে সক্ষম।

১০. এদের কে মধুপায়ী মনে করা হলেও ৮৫ শতাংশ হামিংবার্ডই ফুলের মধ্যে বাস করা ছোট ছোট পোকা খায়।

 

 

 

অনলাইনে পাখি কোথায় পাওয়া যায়ঃ

দোকানের পাশাপাশি পাখি এখন অনলাইনে অর্ডার করে কিনতে পারবেন। অর্ডার করতে নিচে দেয়া পাখি লেখার উপর ক্লিক করুনঃ

পাখি

Leave a Comment

Your email address will not be published.