শিরীষ ফুল

28th December 2019 0 Comments

শিরীষ( Lebbeck, Lebbek Tree, Flea Tree) এটি একটি ছায়াতরু গাছ। এর বৈজ্ঞানিক নাম Albizia  lebbeck এবং সংস্কৃত নাম শিরীষ। দেশের প্রায় সব ধরনের শিরীষ সাধারণত কড়ই গাছ নামে পরিচিত। গড়ন ও আভিজাত্যের দিক থেকে বৃষ্টি শিরীষ এবং গগন শিরীষ দুটোই অনন্য। কিন্তু এরা এদেশের আত্মজ নয়। বরং আলোচ্য শিরীষটি এ অঞ্চলের আদিবৃক্ষ। শিরীষ ফুলের সৌন্দর্য সম্পর্কে এদেশীয় কবিকুলের সচেতনতা সুপ্রাচীন। কালিদাস শিরীষকে চারুকর্ণের অলঙ্কার বলে মেঘদূতে উল্লেখ করেছেন। বৈষ্ণব কবি রাধামোহনের কাছে শিরীষ কোমলতার প্রতীক। চৈত্রের শেষে বৃষ্টিস্নাত ধরিত্রীর স্নেহস্পর্শ ব্যতিরেকে এদেশে শিরীষ প্রস্ফুটিত হয় না।


পরিণত শিরীষ বিশাল বৃক্ষ। কাণ্ড সরল, উন্নত, গোলাকৃতি, দীর্ঘ, পাঁশুটে কিংবা সাদা এবং প্রায় মসৃণ। শীর্ষ ছত্রাকৃতি এবং সঘন পত্রবিন্যাসে ছায়ানিবিড়। পাতা দ্বিপক্ষল এবং আলোসংবেদী, তাই সন্ধ্যায় বুজে যায়। বসন্তের শেষে পাতা গজানো ও ফুল ফোটার সময়। কচি পাতা পাণ্ডর সবুজ। শিরীষ মঞ্জরির আকৃতি রেইনট্রির অনুরূপ হলেও আয়তনে বড়, রঙেও আলাদা। ফুলের সৌন্দর্যটুকু বিকীর্ণ পরাগ-কেশরেই নিহিত এবং তার কমলতা পালকের সঙ্গে তুলনীয়। শিরীষ-মঞ্জরি হালকা হলুদ এবং পরাগকেশরের আগা সবুজ। ফুলের গন্ধ দূরবাহী এবং উগ্র। শিরীষ কাঠ দৃঢ়, দীর্ঘস্থায়ী। শিকড় অরেচক, ছাল চর্মরোগের ওষুধ এবং পাতা রস রাতকানারোগে উপকারী। শ্রীলঙ্কা, মিয়ানমার, মালয় এবং চীনেও গাছটি জন্মে। ইদানীং আফ্রিকা ও আমেরিকায় চাষ হচ্ছে। শিরীষ ফুল সৌন্দর্যে, সুগন্ধে যেমন আকর্ষণীয়, কাব্যসাহিত্যে বহু উল্লেখে সে আমাদের নান্দনিক চেতনারও অঙ্গীভূত। এই গাছের ছাল, মূল,পাতা, ফুল, বীজ ও কাঠের সারাংশ ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

উপকারিতা:

১। শিরীষ বীজ চূর্ণ ও মিছরি চূর্ণ করে গরম দুধসহ সেবন করলে শুক্রতারল্য দূর হয়।

২। শিরীষ গাছের মূলের ছাল চূর্ণ করে নিয়মিত সেবন করলে হাঁপানি ভালো হয়।

৩। শিরীষ ফুল চূর্ণ করে গরম দুধ বা পানি সহ সেবন করলে শুক্রস্তমভন দূর হয়।

৪। শিরীষ গাছের মূল বেটে দংশনস্হানে দিলে বিষক্রিয়া নষ্ট হবে।

৫। চোখ উঠলে শিরীষের বীজ ঘসে চোখে কাজলের মতে করে দিলে উপকার পাওয়া যায়।

৬। যদি দাঁত নড়তে থাকে তাহলে তা বন্ধ করতে বা মাড়ি শক্ত করতে শিরীষ গাছের বীজ চূর্ণ করে দাঁত মাজলে উপকার পাওয়া যায়।

৭। শিরীষ কাঠের চূর্ণ করে নিয়ে পানির সাথে সেদ্ধ করে ক্বাথ বানিয়ে ব্যবহার করলে চর্মরোগ ভালো হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published.