রোজমেরী ফুল

5th December 2019 0 Comments

বৈজ্ঞানিক নাম- Rosmarinus officinalis

পরিবার- Lamiaceae

Rosemarinus গণের অধীনে থাকা ২ বা ৪ টি প্রজাতির মধ্যে Rosemarinus officinalis অন্যতম। গণের নাম Rosemarinus রাখেন বিজ্ঞানী ক্যারোলাস লিনিয়াস। রোজমেরী শব্দের উৎপত্তি ল্যাটিন ভাষা থেকে, রোজ(ros) অর্থ শিশির বা dew আর মেরিনাস(marinus) অর্থ সাগর বা সমুদ্র বা sea । রোজমেরীর সম্পূর্ণ অর্থ দাঁড়ায় Dew of the sea, বাংলায় বলা যেতে পারে সমুদ্রের শিশির। আর গ্রীক ভাষায় একে ডাকা হয় এনথোস নামে, যার অর্থ ফুল। Rosemarinus officinalis ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের সুগন্ধিযুক্ত, চিরসবুজ, বহুবর্ষজীবী গাছ। গাছ সাধারণত ১.৫ থেকে ২ মি উচু এবং শাখা বিভক্ত হয়ে ঝোপ এর সৃষ্টি করে। পাতা ২-৪ সেমি লম্বা এবং ২-৫ মিমি চওড়া, উপরে সবুজ আর নিচের দিকে সাদাটে এবং ছোট ছোটা নরম রোম আবৃত। নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে গ্রীষ্ম এবং বসন্তে আর উষ্ণমন্ডলীয় অঞ্চলে গ্রীষ্মে ফুল ফোটে। ফুলের রঙ সাদা, নীল, বেগুনী, গোলাপী। অনেক হাইব্রিড জাত রয়েছে।

উপকারিতাঃ

১। স্মরণশক্তি বাড়াতে রোজমেরি খুবই উপকারী।

২। রোজমেরি পাতার রস খেলে শরীরের জ্বালা পোড়া কমে যায়।

৩। রোজমেরিতে রয়েছে এন্টি ফাঙ্গাল যা পায়ের নখের ফাঙ্গাস দূর করতে সাহায্য করে।

৪। শরীরের কোন স্থান কেটে গেলে রোজমেরি পাতা থেঁতা করে লাগালে রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যায়।

৫। রোজমেরির তেল দিয়ে মালিশ করলে বাতের ব্যথায় উপকার পাওয়া যায়।

৬। রোজমেরির অরগ্যানিক তেল লাগালে চুলের অধিকাংশ সমস্যা চলে যায়, চুল পড়া বন্ধ হয়, চুলের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.