রাখাল শসা

28th December 2019 0 Comments

রাখাল শসা একটি সপুষ্পক উদ্ভিদ যার বৈজ্ঞনিক নাম Citrullus colocynthis, যা ‘Cucurbitaceae’ পরিবারভুক্ত। (আগে এর বৈজ্ঞানিক নাম ছিল Colocynthis citrullus; পরে এটি পরিবর্তন করা হয়েছে।) সংস্কৃত ভাষায় এর নাম ‘গবাক্ষী’ বা ‘ইন্দ্রবারুণী’ (गवाक्षी, इंद्रवारूणी)। এটি ইন্দ্রায়ণ নামেও পরিচিত। এর ইংরেজি নামগুলো হলো Bitter apple, Colocynth, Vine of Sodom, Citron, Bitter Cucumber, Egusi, desert gourd ইত্যাদি।[১] এটি লতা জাতীয় উদ্ভিদ। এর আদি নিবাস ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল, এশিয়া এবং তুরস্ক। এর লতা অনেকটা তরমুজ লতার মত, তবে এতে ছোট ও শক্ত ফল হয় যার ভেতরটা তিতা। এই গাছ বাংলাদেশেও বেশ জন্মে। রাখাল শসা ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।


উপকারিতা :

১। রাখাল শসার মূলের রস আখের গুড়ের সঙ্গে খেলে কমলা রোগ ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

২। শুকনো রাখাল শসার মূল পানিতে বেটে ফোঁড়ায় লাগালে ফোঁড়া তারাতারি পেকে ভালো হয়ে যায়।

৩। কোন জায়গায় কাঁটা ফুটলে রাখাল শসার মূলের প্রলেপ দিলে কাটা বের হয়ে আসে।

৪। রাখাল শসার মূলচূর্ণ সামান্য পিপুল ও আখের গুড়ের সাথে সেবন করলে সন্ধিবাত ভালো হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published.