মাছ কেন খাব

4th November 2019 0 Comments

বাংলাদেশের মানুষের কাছে মাছ আবহমান কাল ধরে অত্যন্ত জনপ্রিয় পুষ্টিকর খাদ্য হিসাবে পরিচিত। মাছ আমাদের নিত্য দিনের খাবারের সঙ্গী। আমাদের খাবারের দ্বিতীয় তালিকাতে আছে মাছ। আমাদেরকে বলা হয় মাছে ভাতে বাঙ্গালী। কিন্তু আমরা তো প্রতিদিন একই জাতের মাছ খাই না। বিভিন্ন জাতের মাছ ভাতের সাথে খেয়ে থাকি।মাছ খাওয়ার উপকারিতা বলতে একেক মাছের আছে একেক গুন। সব মাছের পুষ্টিগুন সমান নয়।

এক নজরে দেখুন মাছ খেলে আমাদের শরীরে যে স্বাস্থ্য উপকার গুলো হয়

১। হার্ট ভাল রাখে ।

২। উচ্চ রক্তচাপ ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়

৩। চুল উন্নত করে

৪। ত্বক ভাল রাখে

৫। চোখ ভাল রাখে

৬। সৃতি শক্তি বৃদ্ধি করে ও মস্তিষ্ক কর্মক্ষম রাখে

৭। কিদনি ভাল রাখে

৮। ক্যান্সার প্রতিরোধ করে

 

কোন মাছ আমাদের কি উপকার করে

১. রুই মাছ: বল বীর্য ও শুক্র বাড়ায় কিন্তু বাত রোগ থাকলে তা কমায়।

২. কাতলা মাছ: বায়ু পিত্ত ও কফ কমায় কিন্তু শক্তি বাড়ায়।

৩. বাউম মাছ: শুক্র ও বল বাড়ায়।

৪. চিতল মাছ: শুক্র ও বল বাড়ায়।

৫. ইলিশ মাছ: হজম শক্তি বাড়ায়, বায়ু কমায়, পিত্ত ও কফ কমায়।

৬. আইড় মাছ: শুক্র বল ও মেধা বাড়ায় কিন্তু বায়ু ও কফ কমায়।

৭. বোয়াল মাছ: শক্তি বাড়ায়, রক্ত ও পিত্তকে দুষিত করে কিন্তু ত্রিদোষ বাড়ায় অম্লপিত্ত কুষ্ট ও হাপানি প্রভৃতি কঠিন রোগ উৎপাদন করে। সব রোগীর জন্যই অপথ্য।

৮. মাগুর মাছ: শুক্র, বল ও রক্ত বাড়ায়, রক্তহীন ও পউরানা রুগীদের জন্য ভাল খাবার।

৯. শিং মাছ: কফ, মায়ের দুধ ও শক্তি বাড়ায় এবং শরীরের বাত কমায়।

১০. কৈ মাছ: শক্তি ও পিত্ত বাড়ায়, বায়ু ।

১১. খলিশা মাছ: পায়খানা কষায়, বায়ু বাড়ায় গুলরোগ ও আমদোষ কমায়।

১২. শোল মাছ: পায়খানা কষায়, পিত্ত ও রক্তের জন্য খুবই উপকারী।

১৩. গজার মাছ: পায়খানা কষায়, শরীরে শক্তি বাড়ায়।

১৪. চিংড়ি মাছ: রুচি, বল, শুক্র ও কফ বাড়ায়। শরীরের মেদ পিত্ত ও রক্ত দোষে খুবই উপকারী। শীত পিত্ত বা শরীরে এলার্জি বৃদ্ধি করে।

১৫. চাপিলা: শুক্র, বল, কফ বাড়ায়। বায়ু ও পিত্ত কমে, শরীরে আমবাত হয়।

১৬. টেংরা মাছ: কফ ও পিত্ত কমায়, শরীরে বল বাড়ায়।

১৭. ভেটকি মাছ: শরীরের আমবাত উত্‍পন্ন করে, শ্লেমা বাড়ায়, বাত ও পিত্ত কমায়।

১৮. পুটি মাছ: শুক্র বাড়ায়, কফ, বাত, কুষ্ঠ রোগ দূর করে। ঘিয়ে ভাজা পুটি মাছে ধ্বজ ভঙ্গ রোগে উপকার হয়।

১৯. খলিশা মাছ: পায়খানা কষায়, বায়ু বাড়ায় গুলরোগ ও আমদোষ কমায়।

২০. শিলন মাছ: আমবাত উৎপন্ন করে, বল ও শ্লেমা বাড়ায়, বাত ও পিত্ত কমায়।

২১. বেলে মাছ: শরীরে বায়ু বাড়ায়।

২২. ফলি মাছ: শরীরে বল ও শুক্র বাড়ায়, বসন্ত প্রতিরোধক।

২৩. বাইন মাছ ঃ শরীরে শক্তি ও শুক্র বাড়ায়, বাত পিত্ত থাকলে কমায়।

২৪. ভেটকি মাছ: শরীরের আমবাত উৎপন্ন করে, শ্লেমা বাড়ায়, বাত ও পিত্ত কমায়।

২৫. পুটি মাছ: শুক্র বাড়ায়, কফ, বাত, কুষ্ঠ রোগ দূর করে। ঘিয়ে ভাজা পুটি মাছে ধ্বজ ভঙ্গ রোগে উপকার হয়।

এছাড়াও

মাছের ডিম: অত্যন্ত শুক্র বর্ধক, বল, পুষ্টি ও মেদ জনক।
মাছের তৈল: বল পুষ্টি ও কফ পিত্ত জনক।
শুটকী মাছ

 

 

অনলাইনে মাছের পোনা কোথায় পাওয়া যায়ঃ

হ্যাচারীর পাশাপাশি এখন অনলাইনেও অর্ডার করে কিনতে পারবেন যে কোন মাছের পোনা । মাছের পোনা কিনতে ক্লিক করুন নিচে দেয়া মাছের পোনা লেখার উপর।

মাছ

Leave a Comment

Your email address will not be published.