বকুল গাছ

বকুল গাছ
11th October 2019 0 Comments

বকুল গাছ আমাদের সকলের কাছে যেমন পরিচিত তেমনি বকুল ফুল আমাদের সবার কাছে অনেক পরিচিত। গ্রীষ্মকাল থেকে শরৎকাল পর্যন্ত এই গাছে সুমিষ্ট ফুল ফুটে থাকে৷ ফল হয় ছোট ছোট। পাকলে হলুদ বর্ণ ধারন করে। গাছের ডাল ও পাতা ভাঙলে তা থেকে আটা বের হয়। বাংলাদেশের প্রায় সব জায়গায় এর গাছ পাওয়া যায়। বকুল ফুল, ফল, পাকা ফল, পাতা, গাছের ছাল, কাণ্ড, কাঠ সব কিছুই কাজে লাগে। বকুল ফুল, ফল, পাতা, কাণ্ড দিয়ে বিভিন্ন অসুখ নিরাময়ের নানারকম আয়ুর্বেদিক হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

 

এছাড়াও বকুলের আরও কিছু উপকারিতা রয়েছে, একঞ্জরে দেখে নিন সেগুলোঃ

 

১। বকুল ছালের ক্বাথ তৈরি করে তাতে বকুল বীচি ঘষে শ্বেতীতে প্রলেপ দিলে শ্বেতী ভালো হয়।

২। বকুলের পাকা ফলের শাঁস খেলে আমাশয় ভালো হয়।

৩। বকুল বীচি চূর্ণ মধুর সঙ্গে খেলে শুক্রতারল্যে ভালো হয়।

৪। বকুল গাছের ছাল সিদ্ধ করে সেই পানি দিয়ে কুলকুচি করলে দাঁতের গোড়া শক্ত হয়।

৫। বকুলের বীচি চন্দন বাটায় ঘসে দংশিত স্থানে লাগালে সঙ্গে সঙ্গে জ্বালা যন্ত্রণা কমে যায়।

 

অনলাইনে গাছপালা কোথায় পাওয়া যায়ঃ

 

নার্সারির পাসাপাসি গাছপালা কিনতে পারবেন এখন অনলাইনে ।গাছপালা কিনতে ভিজিট করুন নিচে দেয়া নার্সারী লেখার উপর এবং অর্ডার করতে পারেন দেশের যেকোন প্রান্ত থেকেঃ

বীজ

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.