পৃথিবীতে কয়েকশত মুরগীর জাত রয়েছে।মুরগিদের গৃহপালিত প্রাণী হিসেবে পালন করা হয় সমগ্র পৃথিবী জুড়ে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ভৌগলিক সীমা রেখা এবং মুরগীর বৈচিত্রতার ভিত্তিতে এদের আলাদা আলাদা জাত হিসেবে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে। যে সমস্ত শারীরিক বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে এদের আলাদা হিসেবে গণ্য করা হয় সেগুলো হচ্ছে-আকার, শারীরিক গঠন, ঝুঁটির ধরন, চামড়ার রং, আঙুলের সংখ্যা, পাখার গঠন, ডিমের রং, উৎপত্তি স্থল।

 

অনেক জাতের মুরগির কথা ইতিমধ্যে আমরা জেনেছি তবে আজকের জানবো টাইগার মুরগি নিয়েঃ

 

১। সর্বোচ্চ ওজন:-মোরগ ৭-৮কেজি, (৯ কেজির রেকর্ড রয়েছে) আর মুরগি ৩-৪.৫ কেজি ।
২।  বিক্রয়ের উপযোগী:- মোরগ-১.৫-২ মাসে, মুরগি১-২.৫ মাসে
৩। খাবার গ্রহনঃ- .১২০-১৫০ গ্রাম।
৪।  ডিম দেওয়ার সময়ঃ- ৫-৬ মাসের ভিতরে ডিম পাড়ে।
৫। বছরে কত ডিম দেয়ঃ- ১৬০ -১৮০ টি ডিম দেয়।
৬। কত বছরে ডিম দেয়ঃ- ২-২.৫ বছর ডিম পাড়ে এর পরে কমে যায়।
৭। থাকার যায়গাঃ-১.৫-২ র্বগ ফুট জায়গা লাগে।

 

অনলাইনে মুরগির কিনবেন কিভাবেঃ

 

ফার্মের পাশাপাশি এখন অনলাইনেও মুরগি অর্ডার করতে পারবেন। অর্ডার করতে নিচে দেয়া মুরগি লেখার উপর ক্লিক করুনঃ

 

মুরগি

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *