জানুন মেঝে পদ্ধতিতে মুরগি পালনের সুবিধা অসুবিধা

জানুন মেঝে পদ্ধতিতে মুরগি পালনের সুবিধা অসুবিধা
18th May 2020 0 Comments
 
আয় বৃদ্ধি ও পারিবারিক পুষ্টির নিশ্চয়তা বিধানে মুরগী প্রতিপালন বিশেষ অবদান রাখতে পারে । আমরা সবাই বলে থাকি  মুরগির উৎপাদন কম । কিন্তু বিভিন্ন পর্যায়ে বিশেষ লক্ষ্য এবং ব্যবস্থা গ্রহণ করে  মুরগীর উৎপাদন দ্বিগুনের ও বেশী পাওয়া সম্ভব। আজকের লেখায় মুলত আমরা আপনাদের মুরগী পালনের কথা নয় জানাবো মেঝে পদ্ধতিতে মুরগি পালনের সুবিধা অসুবিধা নিয়ে।
 
আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক মেঝে পদ্ধতিতে মুরগি পালনের সুবিধা অসুবিধাঃ
 
মেঝে পদ্ধতিতে মুরগি পালনের সুবিধাজনক বিষয়ঃ-

১) মেঝে পদ্ধতির প্রাথমিক ব্যয় কম।
২) বিভিন্ন প্রয়োজনে (প্রতিষেধক প্রদান) মুরগী ধরা সহজ।
৩) মুরগির Perch এ ঊঠার সুবিধা প্রদান করা যায়।
৪) মুরগির Collective feeding অভ্যাসকে বজায় রাখার ব্যবস্থা থাকে।
৫) দীর্ঘদিন পর লিটার পরিষ্কার করা হয় বিধায় শ্রমিকের সাশ্রয় হয়।
৬) মুরগি পর্যবেক্ষন করতে সুবিধা হয়।

মেঝে পদ্ধতিতে মুরগি পালনের অসুবিধজনক বিষয়ঃ-

১) রোগ জীবানুর সংস্পর্শে আসার আশংকা বেশি।
২) লিটারে এমোনিয়া গ্যাস উৎপন্ন হতে পারে।
৩) লিটারে ধুলাবালি থেকে শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত রোগ সংক্রমিত হতে পারে।
৪) মুরগির ঘরের যন্ত্রপাতি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে শ্রমিক ব্যয় বেশি হয়।
৫) খাদ্য ও পানি প্রদানে বেশি সময় লাগে।
৬) খুব বেশি (১০০০) সংখ্যক মুরগি একই মেঝেতে রাখলে ঠুকরা ঠুকরির অভ্যাস হতে পারে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.