চালমুগরা

22nd December 2019 0 Comments

চালমুগরা (Chaukmoogra) একটি চিরসবুজ মাঝারি আকারের বৃক্ষজাতীয় উদ্ভিদ। এর বৈজ্ঞানিক নাম Hydnocarpus kuryii। এটি Achariaceae পরিবারের অন্তভূক্ত।  এটি চিরসবুজ মাঝারি আকৃতির বৃক্ষ। গাছের বাকল ধূসর, কাঠ খুব শক্ত, ভিতরে সাদা হরেও বাইরের রং হলুদ। বর্শার ফলার ন্যায় লম্বাকৃতির পাতা লম্বা ১৫-২৫ সে.মি. ও চওড়া ৫-১০ সে.মি.। অক্টোবর- নভেম্বর মাসে গাছের ডালের গা থেকে এক বা একাধিক হলদে রঙের মনমাতানো গন্ধে ফল বের হয়। মার্চ-এপ্রিল মাসে শক্ত, গোলাকার কতবেলের ন্যায় ফল হয়। ফলের ব্যাস ৬-৭ সে.মি. লম্বা এবং ১-১.৫ সে.মি. প্রশস্ত, ডিম্বাকার। েএর বীজত্বক মসৃণ ও ভঙ্গুর। এ বীজ থেকে চালমুগরা তেল সংগ্রহ করা হয়। বাংলাদেশ, ভারত ও মিয়ানমার এ গাছের আদি নিবাস। বাংলাদেশের পাহাড়ি বনাঞ্চলে বিশেষ করে চট্টগ্রাম, পার্বত্য চট্টগ্রামের বনে এটি দেখা যায়। এ গণে প্রজাতির সংখ্যা ১টি। চালমুগরা ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।


উপকারিতাঃ

১। চালমুগরার তেল গরম করে সকাল বিকেল সেবন করলে কুষ্ঠরোগে উপকার পাওয়া যায়।

২। চর্মরোগ হলে চালমুগরার পাতা বেটে এর তেলের সাথে মিশিয়ে সেবন  করলে চর্মরোগ দ্রুত ভালো হয়।

৩। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় চুলকানি বা চুলকানির কারণে শরীর লাল হয়ে ফুলে গেলে চালমুগরার তেল লাগালে চুলকানি দ্রুত ভালো হয়।

৪। মাথায় খুসকি হলে চালমুগরার তেল মাথায় লাগিয়ে আধ ঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন।  খুসকি ভালো হয়ে যাবে।

৫। আমাশয় হলে চালমুগরার পাতার সিদ্ধ করে হালকা গরম অবস্থায় সেবন করলে উপকার পাওয়া যায়।

Leave a Comment

Your email address will not be published.