ঘোড়া গুলঞ্চ

9th December 2019 0 Comments

ঘোড়া গুলঞ্চ ( Guduchi and Giloy) একটি লতানো উদ্ভিদ।এর বৈজ্ঞানিক নাম Tinospora sinensis। এটি মেনিস্পারমাসি পরিবারের টিনোস্পোরা একটি উদ্ভিদ। দীর্ঘদিনের হলে খুবই মোটা হয়। এই লতাগুলি আঙ্গুআঙ্গুলও মত মোটা হলে সরু সুতার মতো শিকড় বেরিয়ে ঝুলে থাকে। লতার গায়ের ছালগুলো কাগজের মতো পাতলা, ভিতরটা যেন একগোছা সুতা দিয়ে পাকানো দড়ি, স্বাদে তিক্ত ও পিচ্ছিল। পাতা দেখতে অনেকটা পান পাতার মতো হলেও সাদৃশ্য হৃৎপিণ্ডাকৃতি,শীতকালে পাতা ঝড়ে যায়, বসন্তে আবার নতুন পাতা গজায়। ঘোড়া গুলঞ্চ স্বাদে তিতা। ঘোড়া গুলঞ্চ বাংলাদেশ সহ নেপাল, মায়ানমারে পাওয়া যায়। এই গাছের ঔষধি গুণাগুণ রয়েছে।

এর লতায় রয়েছে নানা রকম রাসায়নিক পদার্থ যেমনঃ
জিঙ্ক,
ম্যাঙ্গানিজ,
ফ্লোরিন,
ক্যালশিয়াম,
টাইটানিয়াম,
ক্রমিয়াম,
আয়রন,
কোবাল্ট,
নিকেল,
কপার,
ব্রমিন,
ষ্ট্রোনশিয়াম এবং
পটাশিয়াম।
যা স্নায়ুবিক শক্তিবৃদ্ধি, হেমোগ্লোবিন বৃদ্ধি করে এবং হৃদযন্ত্র এবং পেশি শক্তি বৃদ্ধি করে।

পুষ্টিগুণ : গুলঞ্চে আছে
আশঁ (১৫ – ১৯%),
প্রোটিন (৩.১%) এবং
প্রতি ১০০ গ্রামে ২৯২.৫৪ ক্যালরি পুষ্টি শক্তি।

উপকারিতাঃ
১। শ্বাসরোগের সমস্যা দেখা দিলে ঘোড়া গুলঞ্চের পাতার রস খেলে উপকার পাওয়া যায়।

২। ঘোড়া গুলঞ্চের পাতার রস হালকা গরম করে এই ক্বাথ সকাল বিকেল খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৩। আমাশয়ের সমস্যা দেখা দিলে ঘোড়া গুলঞ্চের পাতার রস ছাগলের দুধের সাথে মিশিয়ে খেলে আমাশয় ভালো হয়।

৪। ঘোড়া গুলঞ্চের মূল ও পাতার রস একসাথে মিশিয়ে খেলে অর্শ ভালো হয়।

৫। ঘোড়া গুলঞ্চের পাতার রস  খেলে উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৬। ঘোড়া গুলঞ্চের পাতার রস  খেলে প্রমেহ রোগে উপকার পাওয়া যায়

Leave a Comment

Your email address will not be published.