ঘৃতকুমারীর (অ্যালোভেরা)  উপকার

14th November 2019 0 Comments

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী আমাদের কাছে একটি অতি পরিচিত উদ্ভিদ। অ্যালোভেরার বাংলা নাম ঘৃতকুমারী। তবে সারাবিশ্বের মানুষ একে অ্যালোভেরা হিসাবে চিনে। এটি একটি কাণ্ডবিহীন রসাল এবং শাসযুক্ত গাছ। এই গাছটি গড়ে ৬০-১০০ সেমি লম্বা হয়। পাতা ১০-২০ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। পাতার দুইপাশে কাঁটা থাকে এবং পাতা দেখতে অনেকটা চ্যাপ্টা আকৃতির। এই গাছের ফুলও অনেক দর্শণীয়। অ্যালোভেরার আদি বাস উওর-আফ্রিকা এবং কেনারিদিপুঞ্জে। ক্যারলিনিয়াস সর্বপ্রথম অ্যালোভেরার নামকরন করেন। বহু বছর ধরে মানুষ অ্যালোভেরাকে ঔষধি গাছ হিসেবে ব্যবহার করে আসছে।

উপকারিতাঃ

 

ত্বকের সুরক্ষায় কাজ করেঃ

 

ত্বকের সুরক্ষায় অ্যালোভেরার কোন তুলনা হয় না। কারন অ্যালোভেরায় রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিএইজিং উপাদান যা ত্বকের সুরক্ষায় বিশেষ ভাবে কাজ করে থাকে। এছাড়া যদি কেউ প্রতিদিন ১ গ্লাস অ্যালোভেরার শরবত পান করে তাহলে তার  ত্বকের নানা সমস্যা যেমন ব্রণ, ইনফেকশন এমনকি ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। অ্যালোভেরার রস সরাসরি ত্বকে প্রয়োগ করলে ব্রণ এবং ব্রণের দাগ থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

 

হজম শক্তি বৃদ্ধি করেঃ

 

অনেকেই আছেন যারা পেটের সমস্যা বা হজমের সমস্যায় ভোগেন। তারা যদি অ্যালোভেরার শরবত পান করেন তাহলে সেটি মহাঔষধ হিসেবে কাজ করবে।  এছাড়াও অ্যালোভেরার আরও একটি বিশেষ গুণ হলো এটি কোষ্ঠকাঠিন্য এবং ডায়রিয়া জনিত সমস্যার সমাধান করে দেয়। অ্যালোভেরা শুধুমাত্র হজম শক্তিই ভালো করে না। পেটের সব ধরনের অসুখ নিরাময় করে থাকে।

 

হৃদপিন্ড সুস্থ রাখে অ্যালোভেরাঃ

 

যদি অ্যালোভেরার রস রক্তের সাথে মিশে যায় তাহলে রক্তে অক্সিজেনের প্রবাহ বাড়িয়ে দেয়। এতে করে আমাদের দেহের শিরা উপশিরায় অক্সিজেন সম্বলিত রক্তের সরবরাহ বেড়ে যায় এবং তা আমাদের হৃদপিণ্ডের কর্মক্ষমতা বাড়ায়। বৃটিশ মেডিকেলের গবেষকদের মতে অ্যালোভেরার রস রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দিতে বিশেষভাবে কার্যকরী। এতে করেও হৃদপিন্ডের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। ডাক্তাররাও বেশীরভাগ সময় হৃদপিণ্ডের রোগীদের নিয়মিত অ্যালোভেরার রস পান করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

 

দেহের ইমিউন সিস্টেম উন্নত করে অ্যালোভেরাঃ

 

গবেষণায় দেখা যায় যারা নিয়মিত অ্যালোভেরার রস পান করেন তাদের দেহের ইমিউন সিস্টেম অন্যান্যদের তুলনায় প্রায় ৪০% বেশি উন্নত থাকে। অ্যালোভেরার রস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। প্রতিদিন ১ গ্লাস অ্যালোভেরার শরবত দেহের সাদা রক্ত কনিকা বাড়ায় যা রোগ প্রতিরোধে বিশেষভাবে কার্যকরী। এবং অ্যালোভেরার উদ্ভিজ্জ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দেহের ইমিউ সিস্টেম অনেক উন্নত করে।

 

স্বাস্থ্য উজ্জ্বল চুলের জন্য অ্যালোভেরাঃ

 

ত্বকের পাশাপাশি অ্যালোভেরা চুলের জন্যও বেশ উপকারি একটি উপাদান। আর প্রতিদিন মাত্র ১ গ্লাস অ্যালোভেরার শরবত খেলে চুলের নানা সমস্যার সমাধান হবে। যেমন : চুল পড়া, চুলের আগা ফাটা এবং চুল পাতলা হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যার সমাধান করে অ্যালোভেরা। এছাড়াও অ্যালোভেরার রস সরাসরি তেলের সাথে মিশিয়ে চুলে লাগাতে পারেন। তাহলে চুল পড়া ভালো হবে।

 

অনলাইনে গাছপালা কোথায় পাওয়া যায়ঃ

 

নার্সারির পাসাপাসি গাছপালা কিনতে পারবেন এখন অনলাইনে ।গাছপালা কিনতে ভিজিট করুন নিচে দেয়া নার্সারী লেখার উপর এবং অর্ডার করতে পারেন দেশের যেকোন প্রান্ত থেকেঃ

 

নার্সারি

Leave a Comment

Your email address will not be published.