কোষ্ঠকাঠিন্য ভেষজ কিছু নিয়ম

19th November 2019 0 Comments

কোষ্ঠকাঠিন্য হলে ভালোভাবে জীবনযাপন করাটাও কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। অনেকেই প্রায় নিয়মিত কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগেন, বিশেষ করে বয়স্ক মানুষেরা। গর্ভবতী নারীদেরও এটা একটা সমস্যা। কোষ্ঠকাঠিন্যের ভয়ে তারা অনেক কিছুই খেতে ভয় পান। কোনটা খেলে যে স্বস্তি পাবেন, আর কোনটা খেলে কষ্ট চরমে উঠবে, বুঝতে পারেন না।তাই আজকের লেখায় আমরা আপনাদের জানাবো কোষ্ঠকাঠিন্য এড়াতে কিছু নিয়ম।

 

আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক কোষ্ঠকাঠিন্য এড়াতে কিছু নিয়মঃ

 

১। প্রতিদিনের খাবারে রাখুন প্রচুর শাকসবজি। আলু-পেঁয়াজ ছাড়া সময়ের সব রকমের সবজি খাবেন। তবে ঢেঁড়শ পাইলস কমাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে। তাই যারা পাইলস ও কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগছেন তারা নিয়মিত দু’বেলা ঢেঁড়শ খেলে এই সমস্যা থেকে রেহাই পাবেন।

২। দিনে কমপক্ষে ৩ থেকে ৩.৫ লিটার পানি পান করা দরকার। তবে শীতের সময় কিছুটা কম হলেও চলবে।পালংশাক সহ অন্যান্য শাকও রাখুন মধ্যাহ্ন ভোজনে।

৩। কুমড়া, লাউ, পটলসহ সময়ের সবজি খাবেন। তবে খোসা সমেত সবজি খেতে পারলে উপকার বেশি পাওয়া যাবে।

৪। শসা খাবেন খোসা সমেত। কলা, পেয়ারা, লেবু, আম, জাম-সহ বেশির ভাগ ফলেই ফাইবার আছে। তাই নিয়ম করে প্রতিদিন ৩/৪টি ফল খাওয়ার অভ্যাস করুন।

৫। বাথরুমে গিয়ে অনেকক্ষণ বসে চাপ দেবেন না। এতে কিন্তু ভবিষ্যতে এই সমস্যা আরও বেড়ে যেতে পারে।

৬।  নিয়মিত ব্যায়াম করে ওজন রাখুন নিয়ন্ত্রণে। বাড়তি ওজন পাইলসের সমস্যা বাড়িয়ে দেয়। এছাড়া ভারী জিনিসও তুলবেন না।

৭। ধূমপানের অভ্যাস থাকলে ছেড়ে দিন। আর মদ্যপানে এই সমস্যা বাড়ে বলে মদ পানও ছাড়তে হবে। ভাজা খাবার এড়িয়ে চলুন। কাবাবের নামে পোড়ানো মাংসও খাওয়া যাবে না।

৮। ময়দার খাবার খেলে এই সমস্যা বাড়ে। তাই কেক, বিস্কুট খাওয়ার মাত্রা কমিয়ে দিন। এর পরিবর্তে খই, ওটস খেতে পারেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.