নদীর বড় বড় মাছের মধ্যে সুস্বাদু একটি মাছ হলো কাতল। রুই মাছের পরই এ মাছের স্থান। ভাজা কাতল, মাছের তরকারি, দোপেঁয়াজা, কোরসা, মুড়োঘন্ট, কালিয়া সর রান্নায় বাঙালির প্রিয়। বিভিন্ন সামাজিক উত্সবে রুই/কাতলা মাছের রেসিপিটা খুব চলে। তাই আজ শিখে নিতে পারেন কাতল মাছের সুস্বাদু একটি রেসিপি কালিয়া-

উপকরণঃ

যা যা লাগবে:-
কাতলা মাছ ১ কেজি
পেঁয়াজ কুঁচি কোয়ার্টার কাপ
পেয়াঁজ বাটা ২ টেবিল চামচ
আদা বাটা ২ টেবিল চামচ
জিরা বাটা ১ চা চামচ বা জিরা গুড়া ২ চা চামচ
হলুদ গুড়া ২ চা চামচ
মরিচ গুড়া ২ টেবিল চামচ
গরম মশলা পরিমাণ মতো
টমেটো সস ২ টেবিল চামচ
জয়ফল, জয়ত্রী গুড়া ১ টেবিল চামচ
কাঁচা মরিচ ১০টি
লবণ স্বাদ অনুযায়ী
চিনি
তেল ও পানি রান্নার জন্য
সামান্য ঘি
তেজপাতা ২টি
টকদই, কিশমিশ l

 

 প্রস্তুত প্রণালী:

মাছ ধুয়ে হলুদ-লবণ মাখিয়ে কড়া করে ভেজে নিন।
তেল গরম করে গোটা জিরে ও তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে সব ধরনের বাটা মশলা, লবন, মরিচের গুড়া, হলুদের গুড়া দিয়ে মেখে চুলায় বসিয়ে দিতে হবে।
ভালোভাবে কষতে হবে। যখন পানি শুকিয়ে আসবে তখন গুড়া মসল্লা, চিলি সস, টমেটো সস দিয়ে ভালো করে পোড়া পোড়া করে কষতে হবে। যেনো মশলাটা কালো হয়ে যায়। তখন সামান্য গরম পানি দিয়ে অল্প আঁচে দমে রাখতে হবে।
মাঝে মাঝে নেড়ে দিতে হবে।
যখন মশলা নরম হয়ে আসবে বা তেল ভেসে উঠবে তখন ভাজা মাছ কাঁচা মরিচ ও সামান্য জিরার গুড়া দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে। উপরে সামান্য ঘি দিয়ে নামিয়ে নিন ।
চাইলে আলু ব্যবহার করতে পারেন, এক্ষেত্রে আলু লম্বা শেপে কেটে নিয়ে লবন ও হলুদ মেখে ভেজে নিতে হবে । তারপর মশলা কষলে মাছ দেবার আগে ভাজা আলু মিশিয়ে দিতে হবে ।
রুই মাছের কালিয়াও একই উপকরণ ও একইভাবে রাধতে হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *