কলা ও দুধের সমন্বিত গুণ

8th February 2020 0 Comments

 

প্রতিদিন সুষম খাবারের পাশাপাশি এক গ্লাস ব্যানানা মিল্কশেক আপনাকে সুস্থ রাখতে পারে। এই ব্যানানা মিল্কশেকের অনেক ইপকার রয়েছে। 

যেভাবে তৈরি করবেন কলার মিল্কশেক

উপরকরণ

২টি কলা, ২ থেকে ৪ টি খেজুর অথবা চিনি, কয়েকটি দারুচিনি,বরফের টুকরা, দেড় কাপ দুধ ও বাদাম কয়েকটি

প্রস্তুত প্রণালী

যদি ফুটানো দুধ দিতে চান তাহলে প্রথমে তা ঠাণ্ডা করে নিন। বাদাম কয়েক ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে তারপর এতে দিতে হবে। তারপর দুধটা ব্লেন্ডারে দিন। এখন খেজুর অথবা চিনি দিন। দারুচিনি ছেড়ে দিন। এখন এটাকে ব্লেন্ড করুন। এরপর এতে কলা মিশিয়ে আবারও ভালোভাবে ব্লেন্ড করুন। তারপর বরফের টুকরো দিন। ব্যস তৈরি হয় গেল কলার মিল্কশেক। এরপর গ্লাসে ঢেলে পরিবেশন করুন।

কলা ও দুধের সমন্বিত গুণ

দুধ ও কলা একসাথে মিল্কশেক হিসেবে খেলে শরীরে  প্রয়োজনীয় প্রোটিন, ভিটামিন, আঁশ ও মিনারেল পাওয়া যায়।
ওয়ার্কআউট অর্থাৎ ব্যায়ামের পর মিল্কশেকের সাথে বাদাম, কোকো পাউডার মিশিয়ে খেলে এনার্জি পাবেন দ্রুত।

কলা আর দুধের মিশ্রণে তৈরি মিল্কশেক আপনার ওজন বাড়াতে পারে। কারণ এতে পর্যাপ্ত পুষ্টি উপাদান আছে। এতে থাকা প্রোটিন মাংসপেশি মজবুত করবে, কার্বোহাইড্রেট যোগাবে শক্তি আর ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস হাড় মজবুত করবে। পুষ্টিবিদদের মতে ওজন বাড়াতে দিনে সুষম খাবারের পাশাপাশি দুই গ্লাস ব্যানানা মিল্কশেক খাওয়া উচিৎ। 

Leave a Comment

Your email address will not be published.